খুলনায় করোনা রোধে ভ্রাম্যমাণ পথ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

  • আপডেট টাইম : ২১ জুন ২০২১, ০৯:৫৬ অপরাহ্ণ
  • /
  • 136 বার পঠিত

বিজ্ঞপ্তি : খুলনা করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে জনবল নিয়োগ সহ করোনা চিকিৎসার যাবতীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞসহ উপর্যুক্ত ব্যক্তিরদের দিয়ে জেলা ও উপজেলায় করোনা প্রতিরোধ ও মনিটোরিং সেল গঠন করা খুবই জরুরী।

প্রতিবেশি রাষ্ট্র ভারত থেকে কোন পথেয় যেন কেউ প্রবেশ করতে না পারে তাঁর ব্যবস্থা করা এবং প্রবেশ করলে বাধ্যতা মূলক পনের (১৫) দিন সঙ্গ নিরোধ করার ব্যবস্থা করতে হবে।

সংক্রমিত ব্যক্তিরা পরীক্ষা করার জন্য রাস্তায় যানবহনে যাওয়া ও আসার সময় সংক্রমন ছড়াচ্ছে তাই বাড়ী বাড়ী গিয়ে করোনা পরীক্ষা করার যে পদ্ধতি চালু ছিল তা পুনরায় চালু করা প্রয়োজন। বিভাগীয় শহর খুলনায় আরও কমপক্ষে অঅরো কয়েকটি পিসি আর ল্যাব স্থাপন করতে হবে। সংক্রমন আইন-২০১৮ যথাযথ ভাবে প্রয়োগ করার বিকল্প নেই। এসব কথা বললেন জনউদ্যোগ যুব সেলের ভ্রাম্যমান পথ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের উদ্বোধনকালে বক্তারা।

আজ শনিবার বেলা ১১টায় ডা. মিলন চত্বরে জনউদ্যোগ যুব সেলের আয়োজনে খুলনায় করেনা ভাইরাসের সংক্রমণ ও মৃত্যুর ঝুঁকি পাওয়ায় সচেতনতামূলক ভ্রাম্যমাণ পথ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জনউদ্যোগ যুব সেলের আহবায়ক রিপন কুমার বিশ্বাস। স ালনা করেন সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম ও অনুপ মন্ডল। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএমএ’র জেলা সভাপতি কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডাঃ বাহারুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন নাগরিক সমাজের আহবায়ক বীরমুক্তিযোদ্ধা আফম মহসিন. জনউদোগ নারীসেলের আহবায়ক টিআইবি’র সভাপতি এাডঃ শামীমা সুলতানা শীলু, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার এ্যাডঃ মোমিনুল ইসলাম, ওয়ার্কার্স পার্টির মহানগর সভাপতি মফিদুল ইসলাম, সিপিবি’র জেলা কমিটির নেতা মিজানুর রহমান বাবু ,বৃহত্তর আমরা খুলনাবাসীর সভাপতি মাহাবুবুল রহমানখোকন, সমাজকর্মী মানস রায়, সঞ্জয় কুমার মল্লিক ও জনউদ্যোগ,খুলনার সদস্য সচিব সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন।অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুব নেতামোঃ জহিরুল ইসলাম রাতুল, কৃষ্ণ কুমারদে, মফিজুল ইসলাম, রাব্বি হোসেন, মোঃ এম এ সাদী প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, খুলনায় করোনা ভাইরাসের সংক্রমন এর হার ৩৯% করোনা ভাইরাসের বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে করোনা হাসপাতালে বেড সংকট, অক্সিজেন সংকট, চিকিৎসক ও জনবলের অভাব তীব্র আকার ধারন করেছে । ২০২০ সালের মার্চ মাসে আমাদের দেশে করোনার সংক্রমন শুরু হওয়ার থেকে পর্যাপ্ত সময় পাওয়া গেছে কিন্তু আজও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারা গেল না। মহানগরীতে সংগীত পরিবেশন করেন বাংলা বাউল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *