রেগুলেটর এর পার্ট নষ্ট থাকায় ফকিরহাটে কয়েকটি বিলের পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি

  • আপডেট টাইম : ২৩ এপ্রিল ২০২২, ১০:০৫ অপরাহ্ণ
  • /
  • 40 বার পঠিত

এইচ এম নাসির উদ্দিন, কাটাখালী, বাগেরহাট থেকে ঃ বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার লখপুরের,মাসকাটা,খড়িবুনিয়া,ভাবনা,ভট্টখামারএলাকার কয়েকটি বিলে পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। রেগুলেটর এর পার্ট নষ্ট থাকায় জোয়ারের পানি উঠে এ ক্ষতি হয়েছে বলে কৃষকদের দাবি। সরজমিনে দেখা গেছে, ফকিরহাটের লখপুর ইউনিয়নের খাজুরা ৬ গেট ও ভবনা’র খড়িবুনিয়ার ২ গেটের অধিকাংশ পাট দীর্ঘদিনেও সংস্কার করা হয়নি। ফলে গেটগুলির দরজার স্থান ফাঁকা থাকায় পূর্ণিমার জোয়ারে লবন পানি উঠে ফকিরহাট সহ আশেপাশের অন্তত ১০টি বিলের রোপা বোরো ধানের ফসল পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। এতে শতশত একর জমির বোরো ধান নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়েছে। স্থানীয় ধান ও মৎস্য চাষিরা গেটগুলি মেরামত করার জোর দাবী জানিয়ে বলেন, তাড়াতাড়ি গেটগুলি মেরামত করা না হলে ফসলের ব্যাপক ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে।
পশুর নদীর অগ্রভাগে খাজুরা ৬ গেটের উপর দিয়ে মিনেদার বিল, খড়িবুনিয়া বিল, মাসকাটা বিল, চাকুলী বিল, শ্যামগঞ্জ বিল, ঝিনাইখালী বিল, কুমারখালী বিল ও বিঘা বিলের মধ্যদিয়ে একদিকে শ্যামবাগাত অন্যদিকে বাইনতলা গৌরম্বা এলাকায় গিয়ে মিশেছে। একটি খাল উঠে ভাগে ভাগে বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে মিশেছে। কিন্তু নদী—খালের প্রবেশ মুখে পানি উন্নয়ন র্বোড খাজুরা ৬ গেট নামক স্থানে একটি গেট নির্মাণ করার পর গেট ও তার পাট গুলি ভাল থাকলেও পানির চাপে তা ভেঙ্গে যায়।এরপর পানি উন্নয়ন বোর্ড পাটগুলি মেরামত করলেও পরে আর কোন তদারকি হয়নি।ক্ষুদ্র পানি সম্পদ ব্যবস্থাপনা কমিটির পক্ষ থেকে গেট মেরামতের বরাদ্দ হলেও সেটা ছিল নামমাত্র মেরামত । যে কারনে জোয়ারের লবন পানি উক্ত গেট দিয়ে হুহু করে প্রবেশ করে ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়। লখপুর ইউনিয়নের দায়িত্বপ্রাপ্ত উপ—সহকারী কৃষি কর্মকর্তা অভিজিৎ গাউন বলেন, আমরা বেশ কয়েকটি বিলে সরেজমিনে দেখেছি — লবন পানি উঠা বন্ধ করতে না পারলে কৃষকরা ব্যপক ক্ষতির সম্মুখিন হবেন।
এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা কৃষ্ণা সরকার বলেন, আমি খবর পেয়ে আমার উপ—সহকারীদের ঘটনা স্থলে পাঠিয়েছি। তারা বিষয়টি দেখছে এবং কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করছেন। লখপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম,ডি সেলিম রেজা বলেন, আমি ছয় গেটের পাট মেরামতের বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের অবহিত করেছি। তাঁরা বলেছেন, ৬ গেট পূনঃ নির্মানের জন্য একটি টেন্ডার হয়েছে। ঠিকাদার অচিরেই কাজ শুরু করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.